ভার্চুয়াল কোর্টের সহায়তায় বিচারকার্য শুরু হলো মাদারীপুরে

ডেস্ক রিপোর্ট

মাদারীপুরে এই প্রথম প্রযুক্তির ব্যবহার করে ভার্চুয়াল কোর্টের মাধ্যমে বিচার কাজ শুরু হয়েছে। রবিবার থেকে ভার্চুয়াল কোর্টের মাধ্যমে বিচার কাজ শুরু হয়।

প্রতীকী চিত্র

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সরকার ঘোষিত ছুটিতে শারীরিক উপস্থিতি ছাড়া তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে ভার্চুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে আদালতের বিচার কার্যক্রম চালু করেছে। এর ধারাবাহিকতায় আদালতের কার্যক্রম শুরু হয়। ইমেইলের মাধ্যমে আইনজীবীরা আবেদন জমা দেন। জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক নিতাই চন্দ্র সাহা ভার্চুয়াল আদালতের মাধ্যমে একটি  আপিল মামলায় আসামির জামিন মঞ্জুর করেন। তথ্য-প্রযুক্তির মাধ্যমে ভার্চুয়াল উপস্থিতিতে বাদী-বিবাদী পক্ষের আইনজীবীরা পৃথক পৃথক স্থান থেকে শুনানিতে অংশ নেয়। শুনানি শেষে আপিল মামলার আসামির জামিন মঞ্জুরের নির্দেশ দেন বিচারক। আদালতে ভার্চুয়াল উপস্থিতিতে শুনানি নিয়ে মাদারীপুর আদালতে দেওয়া প্রথম আদেশ এটি। 

জামিন আবেদনটি জমা দেন জেলা আইনজীবি সমিতির সাধারণ সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া। তিনি বলেন, আদালতে পৃথক স্থানে ভার্চুয়াল উপস্থিতিতে বাদী -বিবাদীর আইনজীবীরা শুনানিতে অংশগ্রহণ করেন। এইভাবে বিচারকার্যক্রম মাদারীপুরে এই প্রথম।

মাদারীপুর কোর্টে পিপি সিদ্দিকুর রহমান সিং বলেন, মাদারীপুরে এই প্রথম প্রযুক্তির ব্যবহার করে ভার্চুয়াল কোর্টের মাধ্যমে বিচার কাজ শুরু হয়েছে। প্রথম দিনে একটি যৌতুক মামলায় জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক একজনকে জামিন প্রদান করেন।

আপনার মতামত



close