খুলনায় করোনা আক্রান্ত রোগী, তাদের পরিবারের পাশে যুবলীগ

টাইগার নিউজ

প্রেস বিজ্ঞপ্তি ঃখুলনায় করোনা আক্রান্ত রোগী, তাদের পরিবার ও তাদের আশপাশের লকডাউনে থাকা পরিবারের পাশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার পৌছে দিচ্ছে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ খুলনা মহানগর শাখা।
এই কর্মসূচীর অংশ হিসাবে রবিবার তারা খুলনার করোনা হাসপাতালে ০৪ জন চিকিৎসাধীন রোগীদের নিকট প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার পাঠানো হয়েছে। সকালে নগরীর পূর্বের ডায়বেটিস হাসপাতাল বর্তমান করোনা বিশেষায়িত হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ খাবার গ্রহন করেন। উপহারের মধ্যে রয়েছে পুষ্টিকর ফল, ও শুকনোখাবার সহ ১৫ রকমের খাবার।
এদিকে ৩০ এপ্রিল খুলনার দৌলতপুরের মহেশ্বরপাশায় করোনা আক্রান্ত হন একজন রিক্সাচালক। এই কারনে ঋষি পাড়ার ১১৫ পরিবারকে লক ডাউন করে প্রশাসন। গত ০২ মে ঋষি পাড়ায় লকডাউনকৃত ১১৫ পরিবারের মাঝে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার পৌছে দেওয়া হয়। উপহারের মধ্যে রয়েছে ১৫ দিনের খাবার চাল, ডাল ও শ্বাক-সজ্বি। খুলনা দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজী মোস্তাক আহম্মেদ এর মাধ্যমে উপহার সামগ্রী তাদের কাছে পৌছে দেওয়া হয়।
পহেলা মে খুলনা মেডিকেল কলেজের করোনা আক্রান্ত সেবিকার পরিবারের কাছেও পৌছে দেওয়া হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার। পাশাপাশি তাদের আশপাশের অতিউৎসাহিদের অমানবিক কার্যকলাপ বন্ধে হুশিয়ারি জানানো হয় এবং পুলিশ প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষন করা হয়। গত ৩০ এপ্রিল বৃহষ্পতিবার করোনা যুদ্ধের অগ্রগামি সৈনিক এই সেবিকা তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার পরিবারের সাথে অতিউৎসাহী মানুষের অমানবিক আচারনের বর্ননা দেন। এই সংবাদ পাওয়ামাত্র নগর যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক শেখ শাহাজালাল হোসেন সুজন আক্রান্ত এই সেবিকার সাথে ফোনে যোগাযোগ করেন এবং তার পরিবারের সাথে যোগাযোগ করেন। শুক্রবার সকালে সোনাডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মমতাজ উদ্দিন এর নিকট এই পরিবারের জন্য ১৫দিনের খাদ্য সামগ্রী হস্তান্তর করেন।
এছাড়াও গত ৩০ এপ্রিল খুলনার দৌলতপুরের মহেশ্বরপাশায় গত বৃহষ্পতিবার একজন বৃদ্ধ রিক্সাচালক করোনা আক্রান্ত সনাক্ত হয়েছেন। তাকে শুক্রবার সকালে খুলনার করোনা হাসপাতালে (নূর নগর ডায়বেটিস হাসপাতালে) ভর্তি করা হয়। করোনা আক্রান্ত এই ব্যাক্তির পরিবারের কাছেও পৌছে দেওয়া হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার। উপহার সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে, খাদ্য সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে চাল, ডাল, তেল, পেয়াজ, ফল ও শ্বাস সজ্বিসহ ১৫ দিনের খাবার।
এ বিষয়ে খুলনা মহানগর যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক শেখ শাহাজালাল হোসেন সুজন জানান, করোনা আক্রান্ত পরিবারগুলো খুব অসহায় হয়ে পড়ছে। তারা ঘর থেকে বের হতে পারছন না। ফলে আক্রান্ত ব্যাক্তি যদি হাসপাতালে ভর্তি হন তাদের কাছে খাবার পৌছানো সম্ভব হচ্ছে না। এই দৃষ্টি কোন থেকে আমরা হাসপাতালে আক্রান্ত রোগীদের খাবার দিচ্ছি। পাশাপাশি তাদের পরিবারকও দিচ্ছি কারন তাদের পরিবারকে যদি সুস্থ রাখতে হয়, তাদের ঘরে রাখতে হয় তাহলে তাদের পাশে দাঁড়াতে হবে। আমরা প্রশাসনের সহযোগিতায় তাদের পাশে দাঁড়াচ্ছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার পৌছে দিচ্ছি। এবং লক ডাউন এলাকার মানুষদেরও ঘরে রাখতে আমরা পাশে দাঁড়াচ্ছি তাদের।
তিনি আরো বলেন, আমরা দেখছি আক্রান্ত ব্যাক্তি ও তার পরিবার নানা ভাবে অতি উৎসাহী মানুষের অমানবিক কাজের স্বীকার হচ্ছেন। পাশাপাশি তাদের আত্মীয় স্বজনরাও তাদের কাছ থেকে দূরে সরে যাচ্ছে। আমরা এই গুলো প্রতিরোধে সচেতনতা মূলক কাজ কর্ম করে যাচ্ছি। কোথাও কোন অমানবিক কার্যক্রম ঘটলে আমাদের জানালে আমরা প্রশাসনের সহযোগিতায় তা প্রতিহত করব। এই দূর্যোগে আমর সকলে সকলের পাশে থেকে জয়ী হব।

আপনার মতামত



close